অবশেষে শাহরুখ গ্রেপ্তার

অবশেষে ধরা পড়লেন শাহরুখ। মঙ্গলবার সকালে ভারতের উত্তরপ্রদেশের বারেলি এলাকা থেকে ‘মোস্ট-ওয়াটেন্ড’শাহরুখকে গ্রেপ্তার করেছে দিল্লি পুলিশের একটি স্পেশাল টিম। তার গ্রেপ্তারের ঘটনাক বড়সড় সাফল্য হিসাবেই দেখছেন পুলিশ কর্মকর্তারা। এ খবর জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম কলকাতা টুয়েন্টি ফোর।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি হঠাত করেই অশান্ত হয়ে ওঠে উত্তর-পূর্ব দিল্লি। সেই সময় অভিযুক্ত শাহরুখকেই বন্দুক হাতে পুলিশের দিকে গুলি ছুড়তে দেখা গিয়েছিল। মোবাইলে তোলা ভিডিওতে তাকেই বন্দুক হাতে এগিয়ে আসতে দেখা গিয়েছিল। লাল টি শার্ট পরা এই ব্যক্তির হাতেই ছিল বন্দুক। ওইদিন শাহরুখ ৮ রাউন্ডেরও বেশি গুলি চালান বলে অভিযোগ রয়েছে।

ঘটনার পর থেকেই শাহরুখের খোঁজে বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি শুরু করে দিল্লি পুলিশ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে দিল্লি পুলিশের একটি স্পেশাল টিম বারেলি এলাকায় অভিযান চালায়। পুলিশের কাছে খবর আসে যে ঘটনার পর থেকে বারেলি এলাকায় গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে অভিযুক্ত শাহরুখ। উত্তরপ্রদেশের পুলিশের সাহায্য নিয়ে সেখানে তল্লাশি শুরু করে দিল্লি পুলিশের অ্যান্টি ক্রাইম ব্রাঞ্চ। সোমবার রাতেই শাহরুখের আতমগোপনে থাকা জায়গাটিকে ঘিরে ফেলে পুলিশ কর্মকর্তারা। পরে মঙ্গলবার সকালে সকালে হাতেনাতে শাহরুখকে গ্রেপ্তার করে দিল্লি পুলিশ।

জানা যায়, অভিযুক্ত শাহরুখকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করবে। তদন্তকারী কর্মকর্তারা মনে করছেন, এই গ্রেপ্তারের ফলে দিল্লি সহিংসতার পিছনের মানুষটিকে খুঁজে বের করা সম্ভব হবে।

প্রসঙ্গত, এর আগে শাহরুখের গ্রেফতারি নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছিল। ঘটনার পর দিন জানানো হয় যে, অভিযুক্ত শাহরুখকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর কিছুদিন পর দিল্লি পুলিশের তরফে এক টুইট বার্তায় জানানো হয় যে, শাহরুখের খোঁজ পেতে বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি অভিযান চলছে। যা নিয়ে তীব্র বিতর্ক তৈরি হয়। পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন ওঠেছিল তখন। অবশেষে তাকে গ্রেপ্তারে সক্ষম হলো দিল্লি পুলিশের বিশেষ টিম।