আউট হয়ে গেলেন মুমিনুল, সাদমানের হাফ সেঞ্চুরি

ওপেনিংয়ে তামিম ইকবালের সঙ্গী কে হবেন সেটা নিয়ে বেশ জ্বল্পনা-কল্পনা ছিল। সাইফ হাসান নাকি সাদমান ইসলাম? শেষ পর্যন্ত টেস্ট শুরুর হওয়ার খানিক আগে জানা গেলো বাঁ-হাতি ওপেনার সাদমান ইসলামকেই তামিমের ওপেনিং সঙ্গী হিসেবে বেছে নিলো টিম ম্যানেজমেন্ট।

সাদমানকে কেন নেয়া হলো, তার প্রমাণ দিয়ে যাচ্ছেন এই তরুণ ওপেনার। এরই মধ্যে হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করে ফেলেছেন সাদমান। তিনি যখন এক দিকে দৃঢ়তার সঙ্গে ব্যাট করে যাচ্ছেন, তখন অন্যপাশে একের পর এক উইকেট পড়ছে। তামিম ইকবালের পর নাজমুল হোসেন শান্ত এবং সর্বশেষ আউট হয়ে গেলেন অধিনায়ক মুমিনুল হকও।

৬৬ রানে দুই উইকেট যাওয়ার পর সাদমানকে নিয়ে দারুণ একটি জুটি গড়ে তুলেছিলেন মুমিনুল হক। কিন্তু তাদের এই ৫৩ রানের জুটি বেশিক্ষণ টিকতে পারেনি জোমেল ওয়ারিকানের স্পিন ঘূর্ণির সামনে। ৯৭ বলে ২৬ রান করে ওয়ারিকানের বলে ক্যাম্পবেলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান মুমিনুল হক।

এ রিপোর্ট লেখার সময় বাংলাদেশের রান ৫৩.৫ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ১২৫। ১৪৮ বলে ৫৭ রান নিয়ে ব্যাট করছেন সাদমান ইসলাম এবং ৬ বলে ২ রান নিয়ে ব্যাট করছেন মুশফিকুর রহীম।

এর আগে ২৩ রানে তামিম ইকবাল ফিরে যাওয়ার পর দুই তরুণ নাজমুল হোসেন শান্ত এবং সাদমান ইসলাম বেশ সাবলীল ভঙ্গিতেই ব্যাট করে যাচ্ছিলেন। ক্যারিবীয় বোলারদের পেস আর স্পিন ঘূর্ণির তোপ সামলে দলের ইনিংসকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন তারা দু’জন।

কিন্তু ২৪তম ওভারে কাইল মায়ার্সের বল ফাইন লেগে খেলে প্রথমে এক রান নেন সাদমান। কিন্তু দ্বিতীয় রানের জন্য তিনি আবারও দৌড় দিলে অপরপ্রান্তে থাকা শান্ত শুরুতেই দ্বন্দ্বে পড়ে যান রান নেবেন কি না। কিন্তু শেষ মুহূর্তে দৌড় দিতে গিয়ে দেখলেন তার আগেই বল ফিল্ডারের হাত থেকে পৌঁছে গেছে বোলার মায়ার্সের হাতে। অনায়াসেই স্ট্যাম্প ভেঙে দেন মায়ার্স।

৫৮ বল খেলে দুর্ভাগ্যের শিকার হয়ে ২৫ রান করে সাজঘরে ফিরতে বাধ্য হলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। তার আগে তিনি সাদমান ইসলামের সাথে জুটি গড়েন ৪৩ রানের।

ঠিক এক বছর পর আবারও টেস্ট খেলতে নামলো বাংলাদেশ। করোনাভাইরাসের কারণে মাঝে কত টেস্ট যে আর খেলা হয়নি! আটটির মত সিরিজ স্থগিত হয়েছে বাংলাদেশের। গত বছর ফেব্রুয়ারিতে জিম্বাবুয়ের পর এই বছর ফেব্রুয়ারিতে আবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট খেলতে নেমেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

প্রতিপক্ষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবার পাঠিয়েছে দ্বিতীয় সারির দল। করোনার কারণে দেশটির প্রথম সারির অধিকাংশ ক্রিকেটারই আসেনি বাংলাদেশে। যার ফলশ্রুতিতে ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশ জিতেছে ৩-০ ব্যবধানে। এবার টেস্ট সিরিজ। যদিও ওয়ানডের চেয়ে টেস্ট সিরিজে ক্যারিবীয় দল অনেক শক্তিশালী।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক। ব্যাটিং বান্ধব উইকেটে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়াটাই ছিল সঠিক।

কিন্তু ব্যাট করতে নেমে অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবাল সেই সুবিধাটা কাজে লাগাতে পারেননি। সাদমান ইসলামকে নিয়ে মাত্র ২৩ রানের জুটি গড়ার পরই বিদায় নিয়েছেন চট্টগ্রামের লোকাল বয়। ১৫ বল খেলে মাত্র ৯ রান করে কেমার রোচের বলে সরাসরি বোল্ড হয়ে গেলেন তামিম।

রোচের লেন্থ বলটি ফরোয়ার্ড শট খেলতে গিয়েছিলেন এই ওপেনার। তবে পা ফরোয়ার্ড ছিল না। বলটি তার ব্যাট ফাঁকি দিয়ে প্যাডে হালকা চুমু দিয়ে গিয়ে আঘাত করে স্ট্যাম্পে।