এখন বিশ্বাস করি অস্ত্র নয়, পৃথিবীতে একমাত্র আল্লাহই শক্তিশালী: শামীম ওসমান

জুমবাংলা ডেস্ক: নিজের কাছে এক সময় জেলা পুলিশের চেয়েও বেশি অস্ত্র থাকার কথা বলে আবার আলোচনায় এসেছেন শামীম ওসমান৷ তবে একদিন পরই ডয়চে ভেলের কাছে নারায়ণগঞ্জের এই আওয়ামী লীগ নেতা ও সাংসদের দাবি, আর কোনো অবৈধ অস্ত্র নেই তার কাছে৷

নতুন উপলব্ধির কথা জানাতে গিয়ে ডয়চে ভেলেকে তিনি বলেন, ‘‘আগে মনে করতাম অস্ত্রই শক্তিশালী, কিন্তু এখন বিশ্বাস করি পৃথিবীতে একমাত্র আল্লাহ শক্তিশালী৷’’

রবিবার নারায়ণগঞ্জ পুলিশ লাইন মাঠে পুলিশ মেমোরিয়াল ডে আলোচনা সভা ও সম্মাননা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন শামীম ওসমান৷ সেখানে তিনি বলেন, ‘‘২০০১ সালের আগে জেলা পুলিশ ফোর্সের কাছে যত অস্ত্র না ছিল, তার থেকে বেশি অস্ত্র একা আমার নিজের কাছেই ছিল৷” অনুষ্ঠানে জেলা পুলিশ সুপার ও জেলার ডেপুটি কমিশারও উপস্থিত ছিলেন৷

সোমবার ওই বক্তব্য নিয়ে ডয়চে ভেলেকে তিনি বলেন, ‘‘আমি যা বলেছি ঠিকই বলেছি৷ তবে সময়টি হবে ১৯৯১ সাল৷ তখন আমার বয়স ছিল ২২ বছর৷ আমি ভুলে ২০০১ সাল বলে ফেলেছি৷ আমার কাছে তো অস্ত্র ছিল৷ আমরা গোলগুলি, ফাটাফাটি তো করেছি৷ এটা অস্বীকার করবো কিভাবে?’’

তিনি আরো বলেন, ‘‘আমার লাইসেন্স করা অস্ত্র আছে৷ তবে তা ২০০১ সাল থেকে আমার সাথে নাই৷’’

শামীম ওসমান সেইঅবৈধ অস্ত্র রাখার পক্ষেও যুক্তি তুলে ধরে বলেন, ‘‘১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের পর থেকে ১৯৯১ সাল পর্যন্ত আমরা অস্ত্র ব্যবহার করতে বাধ্য হয়েছি৷ কারণ, ওই সময়ে স্বাধীনতাবিরোধী, যুদ্ধাপরাধীরা এবং বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীরা সক্রিয়ভাবে রাজনীতিতে অংশ নিয়েছে৷ মিথ্যা কথা বলবো না, তখন আমরা অস্ত্র জোগাড় করতে বাধ্য হয়েছি৷ বঙ্গন্ধুকে মেরে ফেলার পর আমরা মনে করেছিলাম প্রতিশোধটা আমরা হত্যার মাধ্যমে নেবো৷ কিন্তু আমাদের এই ধারণা পরিবর্তন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ তিনি বলেছেন, হত্যার মাধ্যমে প্রতিশোধ নয়, আইনের শাসনের মাধ্যমে প্রতিশোধ৷’’