করানা ভাইরাসে আক্রন্ত ৮৭ বছর বয়সী স্ত্রীকে হাসপাতালে খাইয়ে দিচ্ছে স্বামী! ভালোবাসার কোন বয়স নেই

করানা ভাইরাসে আক্রন্ত ৮৭ বছর বয়সী স্ত্রীকে হাসপাতালে খাইয়ে দিচ্ছে স্বামী! ভালোবাসার কোন বয়স নেই- চিনে এক কথায় মহামারীর আকার নিয়েছে কর না ভাইরাস, যে ভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে তাতে দেশ ছেড়ে পালাতে পারলেই বাঁচে সে দেশের বাসিন্দারা।

শুধু চিন নয় চিন থেকে আসতে আসতে এই ভাইরাস বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে থাবা বসিয়েছে। যার জেরে তটস্থ বিশ্ববাসী। ভাইরাসের আক্রমণে অনেকেই হারিয়েছেন প্রিয় জনেদের তবে এবার সামাজিক মাধ্যমে এমনই একটি ছবি ভাইরাল হল যা এই অসময়েও সকলকে একবার হলেও ভাবিয়ে তুলেছে।

আসলে কথাতেই আছে ভালোবাসার কোনও বয়স হয় না তাই তো সাতাশি বছরের স্ত্রী যখন হাসপাতালের বিছানায় মারণ করনা ভাইরাসে আক্রান্ত ঠিক তখনই বিছানার পাশে দাঁড়িয়ে তাঁর স্বামী সযত্নে স্ত্রীর মুখে তুলে দিচ্ছেন খাবার। যে ভাবে চিন দেশেই করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে তাতে আসতে আসতে প্রায় প্রতিটি

পরিবার থেকেই কেউ না কেউ আক্রান্ত না হলেও তাদের মধ্যে সংক্রমণের প্রাথমিক উপসর্গ দেখা দিয়েছে আর সে ভাবেই ওই বৃদ্ধ করনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন। কিন্তু চিকিত্সকদের চিকিত্সায় এবং ভগবানের কৃপায় তিনি প্রাণ দিয়ে ফিরেছেন তবে আক্রান্ত হয়েছেন তার স্ত্রী। তাই তো এই দুর্দিনেও স্ত্রীকে কোনোভাবেই ছেড়ে যেতে নারাজ তিনি।

তাই তো হাসপাতালে স্ত্রী যখন কাতরাচ্ছেন ঠিক তখনই বৃদ্ধ স্বামী বেডের পাশে দাঁড়িয়ে খাইয়ে দিচ্ছেন। ভিডিও দেখে আবেগে ভাসছে নেট দুনিয়া, জানা গিয়েছে ওই হাসপাতালের অন্য ওয়ার্ডে ভর্তি ছিলেন ওই বৃদ্ধ। স্ত্রীর করনা ভাইরাসে আক্রমণের কথা জানতে পারার পর স্ত্রীর বেডের কাছে এসেই এক বোতল জল নিয়ে খাইয়ে দিচ্ছিলেন তিনি। ভিডিও দেখে সকলেই ওই বৃদ্ধ এবং বৃদ্ধার।