চার বাংলাদেশি পেলেন পোপের বিশেষ সম্মাননা!

পুণ্য পিতা পোপ ফ্রান্সিসের বিশেষ সম্মাননা পেলেন একজন সিস্টারসহ চারজন খ্রিষ্টভক্ত। তাঁরা হলেন সিস্টার মেরী লিলিয়ান, এমএমআরএ; টমাস রোজারিও, মাইকেল বটলেরু ও জ্যোতি ফ্রান্সিস গমেজ।

সম্প্রতি রমনা ক্যাথিড্রালে খ্রিষ্টমন্ডলীতে বিশেষ অবদানের জন্য পোপের পক্ষে ‘সম্মানের ক্রুশ’ সম্মাননা তাঁদের হাতে তুলে দেন পুণ্যপিতা পোপর প্রতিনিধি আর্চবিশপ জর্জ কোচেরি ও কার্ডিনাল প্যাট্রিক ডি’রোজারিও সিএসসি। সম্মাননা হিসেবে তাঁদের হাতে তুলে দেওয়া হয় একটি স্বর্ণের মেডেল ও একটি সনদ।

আঠারগ্রামের গোল্লা ধর্মপল্লীর ‘টমাস মেম্বর’ নামে পরিচিত টমাস রোজারিও ৩৮ বছর ধরে ইউনিয়ন পরিষদে মেম্বর হিসেবে সেবা দিয়ে আসছেন। বর্তমানে তিনি ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি পোপের সম্মাননা প্রাপ্তিতে অনুভূতি প্রকাশ করে বলেন, ‘আমি সারাজীবন নিঃস্বার্থভাবে মানুষের জন্য কাজ করেছি। আমি কোনো পুরস্কারের জন্য কাজ করি নাই। তবে পোপের সম্মাননা আমাকে সম্মানিত করেছে। টমাস রোজারিও ঢাকা ক্রেডিটের একজন সম্মানিত উপদেষ্টা।

নারী ক্ষমতায়নের জন্য একই সম্মাননা লাভ করেছেন সিস্টার মেরী লিলিয়ান, এমএমআরএ। তিনি জাগরণী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র পরিচালনা করে থাকেন। তিনি জাগরণীর মাধ্যমে তিন হাজারেরও বেশি প্রান্তিক নারীকে হস্তশিল্পের মাধ্যমে স্বাবলম্বী হতে সাহায্য করেছেন।
দেশে শিক্ষায় বিশেষ অবদানের জন্য এই সম্মাননা লাভ করেছেন সাভারের দু-জন কৃতী সন্তান- মাইকেল বটলেরু ও জ্যোতি ফ্রান্সিস গমেজ। জ্যোতি ফ্রান্সিস গমেজ বাংলাদেশ ক্যাথলিক শিক্ষা বোর্ডের সেক্রেটারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি শিক্ষকতা ছাড়াও শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকেন।