জিম্বাবুয়েকে বাংলাদেশের বিশাল চ্যালেঞ্জঃ ম্যাশ শূন্য বলে শূন্য রান, নট আউট

জিম্বাবুয়েকে বিশাল রানের চ্যালেঞ্জ দিয়েছে বাংলাদেশ। সিলেটে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে প্রথম একদিনের ম্যাচে বাংলাদেশ করেছে ৬ উইকেটে ৩২১ রান। লিটন দাসের সেঞ্চুরির পাশাপাশি মোহাম্মদ মিঠুনের ঠিক ৫০ রান এবং মাহমুদুল্লাহর ৩২, শান্তর ২৯, সাইফুদ্দিন ২৭ (অপ.), তামিম ইকবাল ২৪ রান করেছেন।

লিটন দাসের ব্যাট থেকেই বাংলাদেশের মূল সংগ্রহ এসেছে। তবে তাকে মাঠ ছাড়তে হয়েছে কষ্ট নিয়ে। সেঞ্চুরি উদযাপনের পর আরো আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করছিলেন লিটন দাস। একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে যাচ্ছিলেন। ব্যক্তিগত সংগ্রহ যখন ১২০ রান, তখন বল উড়িয়ে মারেন এই ওপেনার। সীমানা ছাড়িয়ে বল চলে যায় মাঠের বাইরে। কিন্তু লিটন ক্রিজে ব্যাট ফেলে এক পায়ে অপরপ্রান্তে পৌঁছান। মাঠে আসেন ফিজিশিয়ান। পর্যবেক্ষণ করে মাঠের বাইরে নিয়ে যান লিটনকে। পায়ের মাংসপেশীতে চোট পাওয়ায় খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে মাঠ ছাড়েন এই সেঞ্চুরিয়ান। রিটায়ার্ড হার্ট হওয়ার আগে তার সংগ্রহ ছিল ১২৬ রান।
শেষ ওভারে সাইফুদ্দিনও চমক দেখান তিনটি ছক্কা হাঁকিয়ে।

দুই দলের বাকি ম্যাচগুলো যথাক্রমে ৩ ও ৬ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। ওয়ানডে সিরিজের পরে উভয় দল যথাক্রমে ৯ ও ১১ মার্চ ঢাকার মিরপুরে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে অংশ নিবে।

বাংলাদেশ একাদশ : তামিম ইকবাল, নাজমুল হোসেন শান্ত, লিটন দাস, মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক), মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, মাশরাফি বিন মুর্তজা (অধিনায়ক), মোস্তাফিজুর রহমান।

জিম্বাবুয়ে একাদশ : চামু চিভাভা (অধিনায়ক), টিনাশে কামুনহুকামওয়ে, ব্রেন্ডন টেলর (উইকেটরক্ষক), সিকান্দার রাজা, রেগিস চাকাভা, রিচমন্ড মুতুম্বামি, টিনোটেন্ডা মুতোম্বোজি, ডোনাল্ড তিরিপানো, ওয়েসলি মাধেভেরে, ক্রিস এমপোফু, কার্ল মুম্বা।