দিল্লি জ্বলছে না, আমি দেখছি পঙ্গু হচ্ছে মানবতা : দেব

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনকে কেন্দ্র করে দিল্লির সহিংসতা নিয়ে মুখ খুলতে দেখা যায়নি বলিউডের প্রথম সারির অভিনেতাদের। কিন্তু দিল্লির এই অশান্তি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে সরব হয়েছেন টলিপাড়ার একাধিক তারকারা। এই অশান্তির জেরে প্রাণ হারিয়েছেন ৩৯ জন, আহত ৩০০ জনেরও বেশি। সহিংসতা নিয়ে নাগরিক সমাজের কথা চিন্তা করে টুইট করেছেন মিমি, নুসরাত ও দেবসহ একাধিক টলিতারকারা।

টলিউডের জনপ্রিয় নায়ক ও তৃণমূল সাংসদ দেব তার টুইটার হ্যান্ডলে ভারতের জাতীয় পতাকার ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, আমি দেখতে পাচ্ছি, দিল্লি জ্বলছে না। আমি দেখছি মানবতা পঙ্গু হয়ে যাচ্ছে। এটা স্রষ্টার পরিকল্পনা নয়। এটা বন্ধ হওয়া দরকার। না হলে জাতি হিসেবে আমরা সবাই একসঙ্গে ব্যর্থ হব।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভিকে দেব বলেন, ‘সোমবার থেকে যেভাবে সহিংসতা শুরু হয়েছে দিল্লিতে, তাতে আমি গভীর যন্ত্রণা পেয়েছি। শান্তি ফিরে আসুক এটাই কামনা।’ টলিউডের সুপারস্টার প্রসেনজিৎও টুইট করেছেন বিষয়টি নিয়ে। তিনি লিখেছেন, ‘দিল্লির অশান্তির ঘটনায় দুঃখিত ও বিধ্বস্ত অনুভব করছি। সহিংসতা জয়ী হতে পারে না। আসুন ভারতীয় হিসেবে একসঙ্গে এগিয়ে আসি আমরা।’
পশ্চিমবঙ্গের যাদবপুরের তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী টুইট করে লিখেছেন, ‘আজ ভালো হয়েছে কবি গুরু তুমি বেঁচে নেই। আজ ভালো হয়েছে কবি নজরুল ইসলাম তুমি বেঁচে নেই। কারণ মোরা একই বৃন্তে দুটি কুসুম হিন্দু-মুসলমান আর নই। মোরা রাম আর রহিম ভাই ভাই আর নই। যেটা আমরা এখন, সেটা আর যাই হোক মানুষ আর নই।’

মুখ খুলছেন টলিউডের অভিনেতা থেকে পরিচালকরা। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের রচিত কবিতার অংশ উদ্ধৃত করেছেন সৃজিত মুখার্জি। তিনি লিখেছেন, ‘অহরহ তব আহ্বান প্রচারিত, শুনি তব উদার বাণী। হিন্দু বৌদ্ধ শিখ জৈন পারসিক মুসলমান খৃস্টানী। পূরব পশ্চিম আসে তব সিংহাসন-পাশে প্রেমহার হয় গাঁথা। জনগণ-ঐক্য-বিধায়ক জয় হে ভারতভাগ্যবিধাতা! জয় হে, জয় হে, জয় হে, জয় জয় জয় জয় হে।’

অন্যদিকে দিল্লির সংঘর্ষ নিয়ে বাংলা, হিন্দি ও ইংরেজি তিন ভাষাতেই কবিতা লিখেছেন পঞ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। নিজের ফেসবুক পেজে কবিতাটি পোস্ট করেন তিনি। এর আগে নুসরাত জাহান টুইট করে লিখেছেন, দুঃখিত, শোকাহত ও বেদনাদায়ক। আমার দেশ জ্বলছে। আমরা মানুষ, এটা ভুলে গেলে চলবে না। দয়া করে গুজব, ভুয়া খবর ও ঘৃণা ছড়াবেন না।