দিল্লি সহিংসতার নায়ক বিজেপি নেতা কপিল মিশ্রের বিচার দাবি

বিজেপি নেতা কপিল মিশ্রের উস্কানির কারণেই দিল্লিতে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আর এ নিয়ে সরব হয়েছেন বিরোধীরা।

ভারতের সচেতন নাগরিকরাও কপিল মিশ্রের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া দাবি জানাচ্ছেন। এমনকি তার দলেরই নেতা সাবেক ক্রিকেট তারকা গৌতম গাম্ভীরও বলেছেন, উস্কানিদাতা যেই হোক, তার বিচার হওয়া উচিত।

বলিউড সংগীতকার জাভেদ আকতারও কপিলের উস্কানির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

মুসলিমবিরোধী বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে দিল্লির শাহীনবাগ ও জাফরাবাদে অবস্থান নিয়ে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছিলেন প্রতিবাদকারীরা।

কিন্তু বিজেপির পক্ষ থেকে বারবার অভিযোগ তোলা হচ্ছিল, রাস্তা বন্ধ করে বিক্ষো করায় সাধারণ মানুষের সমস্যা হচ্ছে।
এর মধ্যেই দুই দিনের ভারত সফরে আসেন ট্রাম্প।

এমন পরিস্থিতিতে টুইটারে বিজেপি নেতা কপিল মিশ্র বলেন, ‘ট্রাম্প দেশ ছাড়ার আগে রাস্তা খালি করান। এরপর আমাদের রাস্তায় নামতে হবে। তখন কিছু বলতে পারবেন না।’

তার এই টুইটের পর থেকেই বিজেপির নেতাকর্মীরা জাফরাবাদের বিক্ষোভকারীদের ওপর হামলা চালাতে শুরু করে।

এর পরপরই জাভেদ আখতার কপিলের এই মন্তব্যকে উসকানিমূলক আখ্যা দিয়ে টুইট করেন। তিনি বলেন, দিল্লিতে ক্রমশই অশান্তি বেড়ে চলেছে। সব ‘কপিল মিশ্রদের’ লাগামছাড়া ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। দিল্লিবাসীদের কাছে বিষয়টি এমনভাবে তুলে ধরা হচ্ছে যে সবকিছুই যেন সিএএ বিরোধী আন্দোলনের জেরে ঘটছে!

এছাড়া অশান্ত পরিস্থিতির একটি ভিডিও শেয়ার করে অনুরাগ কাশ্যপ বলেছেন, কারা রক্তের জন্য তৃষ্ণার্ত বোঝাই যাচ্ছে।
সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে ফুঁসে ওঠা দিল্লিতে সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত ২০ জন নিহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। দিল্লির একটি মসজিদে আগুন দিয়ে মিনারে হনুমানের পতাকা লাগানো হয়েছে।