নাটোরে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

নাটোরের সিংড়ায় জলি খাতুন (১৭) নামে বঙ্গবন্ধু টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার ভোরে তিনি নিজ ঘরে ফ্যান ও গলার সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।

নিহত ছাত্রী শেরকোল ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা ইউপি সদস্য আনছুরা বেগম ও একই ইউনিয়নের গ্রাম্য (পুলিশ) দফাদার জামাল উদ্দিনের মেয়ে।

পুলিশ বলছে, সকালে ওই ছাত্রীর মা স্থানীয় ইউপি সদস্য আনছুরা বেগম মেয়ের কোনো সাড়া না পেয়ে দরজা ধাক্কিয়ে খোলেন। ঘরে মেয়ের মরদেহ ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন। পরে এলাকাবাসী লাশ উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত ছাত্রীর চাচা আইজুল বলেন, নিহত জলি খাতুন ও তার ছোট বোন পলি খাতুন দুজনই খুব আদরের ছিল। তবে মাঝে মাঝে একটি বক্স নিয়ে দুই বোনের মধ্যে ঝগড়া হতো। কিন্তু আজ আত্মহত্যা করার মতো কোন ঘটনা ঘটেনি।

স্থানীয় ৭ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আক্কাছ আলী বলেন, নিহত ছাত্রী বাড়ির সাথেই অবস্থিত কলেজে পড়াশোনা করত। আর সে কোনো সময় মোবাইল ফোনও ব্যবহার করত না। আত্মহত্যার তো কোনো কারণ বুঝা যাচ্ছে না।

সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর-এ-আলম সিদ্দিকী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।