পুরুষরা এখন কিছু করার আগে সাত পা পিছিয়ে যায়

ভারতে মিটু আন্দোলনে কেটে গেছে প্রায় ১৫ মাস। এতোদিন পর এই নিয়ে মুখ খুললেন কাজল। তিনি ও শ্রুতি হাসান জানিয়েছেন, বিনোদন জগতে যৌন হয়রানি নিয়ে কথোপকথন মূলত আলাদা।

কাজলের শর্ট ফিল্ম ‘‌দেবী’‌ বিশেষ প্রদর্শনে এসে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে মিটু আন্দোলনের প্রভাব নিয়ে কথা বললেন কাজল ও শ্রুতি হাসান। তাঁদের মতে বদল এসেছে। কাজল জানান, বলিউডের অন্দরে পুরুষরা কি নিয়ে কথা বলছেন তা নিয়ে যথেষ্ট সচেতনতা এসেছে। কাজল বলেন, ‘‌হ্যাঁ। অবশ্যই। পরিবর্তন এসেছে। শুধু ফিল্মের সেটেই নয়। বিভিন্ন ক্ষেত্রেও তার প্রতিফলন দেখা যাচ্ছে।

কাজল বলেন, মিটু আন্দোলনের জোয়ার অনেকের জীবনে বদল এনেছে। সত্যি বলতে ভাল, মন্দ, আলাদা সব ধরনের পুরুষই কিছু করার আগে সাত পা পিছিয়ে যান এখন। আর এটা খুব প্রয়োজন। ভাল বা খারাপের চেয়েও অনেকের চিন্তাভাবনা প্রত্যেকের প্রতিদিনের কথোপকথনে হয়ে থাকে সেটা সেটা বা অফিসের পরিবেশে হোক না কেন।’

ঠিক দু’বছর আগে হলিউডে প্রথম মিটু আন্দোলন দেখা যায়। এরপরই তার রেশ এসে পড়েছিল বলিউডেও। একের পর এক অভিনেত্রীরা তাঁদের অভিনয় জীবনে ঘটে যাওয়া নানান অপ্রীতিকর ঘটনা নিয়ে সরব হয়েছিলেন। শুরু হয়েছিল প্রতিবাদ। নানা পাটেকর, অলোক নাথ, সাজিদ খান, অন মালিকদের বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছিলেন নেহা ধুপিয়া, তনুশ্রী দত্তেরা। সেই প্রতিবাদ চলছে আজও।