ভারতের ছেলেদের মতো মেয়েদেরও কাণ্ডজ্ঞানহীন রানআউট

যুব বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে রান নিতে গিয়ে ভারতের দুই ব্যাটসম্যান এক সঙ্গে পৌঁছে গিয়েছিলেন একই প্রান্তে। হয়েছিলেন রান আউট। আর ক্রিকেট বিশ্বে জন্ম দিয়েছিলেন হাস্যরস। তবে এমনটা ভুলে যাননি ভারতের নারী খেলোয়াররা। আবারো জন্ম দিলেন হাস্যরস।

মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচে ঘটলো একই ঘটনা। ইনিংসের শেষদিকেই দুই ব্যাটার একপ্রান্তে পৌঁছে হয়েছেন রানআউট। ইনিংসের ১৭তম ওভারের শেষ বলে অফস্টাম্পের বাইরের বলে ব্যাট চালান দিপ্তি শর্মা। সহজেই রানের খাতায় যোগ করেন ১ রান। কিন্তু দ্বিতীয় রান নেওয়ার সময় তারা জন্মদেন হাস্যরসের। ননস্ট্রাইক প্রান্তে পড়ে যান তিনি। সেটি খেয়াল করেননি ভেদা কৃষ্ণামুর্থি। দ্বিতীয় রানের জন্য ছুটে তিনিও চলে আসেন একই প্রান্তে। ভারতীয় এই নারী ব্যাটারদের এমন কাণ্ড দেখে ফারজানা হক ঠাণ্ডা মাথায় বল ধরে সেটি পাঠিয়ে দেন উইকেটরক্ষক নিগার সুলতানার গ্লাভসে। যিনি বিদায় ঘণ্টা বাজিয়ে দেন ১৬ বলে ১১ রান করা দিপ্তির।

এদিকে, টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক সালমা খাতুন। খেলতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকা ভারত নির্ধারিত ২০ ওভারে ছয় উইকেট হারিয়ে ১৪২ রান সংগ্রহ করেছে। জয় পেতে হলে বাংলাদেশকে করতে হবে ১৪৩ রান।