ভারতের পাসপোর্ট নিয়ে বাংলাদেশি তরুণ সৌদিতে, যেভাবে ধরা পড়লেন

৬ বছর আগে অবৈধভাবে ঢাকা থেকে ভারতে গিয়ে ২০১৪ সালে ভারতের পাসপোর্ট নেন রিপন দেবনাথ (২৫)। পরে ওই পাসপোর্ট ব্যবহার করে তিনি সৌদি আরবে যান। সেখানে শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন রিপন। তবে নিয়োগদাতাদের নিপীড়নের শিকার হয়ে ভারতে ফিরে গিয়ে এবার আটক হলেন তিনি।

এ ব্যাপারে দ্য হিন্দুর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৯ সালের আগস্টে রিয়াদে শ্রমিকের কাজ নেন তিনি। কিছুদিন পর নিয়োগদাতাদের নিপীড়নের শিকার হন। তার পাসপোর্ট কেড়ে নিয়ে সামান্য খাবার দিয়ে একটি ঘরে আটকে রেখেছিল নিয়োগদাতারা। এমনকি তাকে যে পারিশ্রমিক দেওয়ার কথা ছিল, সেটাও তাকে দেওয়া হয়নি।

অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে সেখান থেকে পালিয়ে গিয়ে ভারতের দূতাবাসের দ্বারস্থ হন রিপন। সেখানকার কর্মকর্তারা তার কাছে ভারতের জরুরি পাসপোর্ট পেয়ে বেঙ্গালুরুতে ফিরে যাওয়ার জন্য টিকিট বুক করে দেন।
পরে বেঙ্গালুরুর কেম্পেগৌড়া আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছালে রিপনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সোমবার পুলিশ জানায়, ভারতের বিভিন্ন জায়গায় থেকেছেন রিপন। এরপর একটি জাল জন্মসনদ গ্রহণ করেছেন। পরে ড্রাইভিং লাইসেন্সও জোগাড় করে নেন। অবশেষে হায়দরাবাদ গিয়ে ওই পাসপোর্ট তৈরি করেন। যারা তাকে এসব তৈরিতে সাহায্য করেছে তাদেরকে আটকের চেষ্টা করছে পুলিশ।