মহানবী সা:-এর ব্যঙ্গচিত্রের সমর্থন, চেয়ারম্যানের বাড়িতে আগুন

কুমিল্লার মুরাদনগরে মহানবী সা :-এর ব্যঙ্গচিত্রের সমর্থন করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ার অভিযোগ স্থানীয় দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় এলাকায় সালিশ ডাকলে স্থানীয় চেয়ারম্যান সালিশে উপস্থিত না হওয়ায় চেয়ারম্যানের বাড়িসহ কয়েকটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করেন বিক্ষুব্ধরা।

এ ঘটনায় ওই এলাকা ব্যারিকেড দিয়ে রেখেছে পুলিশ। স্থানীয় কাউকে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। এ নিয়ে এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

এদিকে এর আগে ধর্মীয় অবমাননা মামলায় এক শিক্ষকসহ দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রোববার সকালে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্তরা হলেন শংকর দেবনাথ ও অনিক ভৌমিক

স্থানীয় সূত্র জানা যায়, ফ্রান্সে মহানবী সা:-কে নিয়ে করা ব্যঙ্গচিত্রের প্রতি সমর্থন জানিয়ে ফেসবুকে স্ট্যটাস দিয়েছেন ওই দুই ব্যক্তি এমন অভিযোগ ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। শনিবার দুপুরে এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করে কোরবানপুর গ্রামের বাসিন্দারা। বিকেলে দু’জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেন উপজেলার কোরবানপুর গ্রামের ধনমিয়া। সন্ধ্যায় অভিযুক্তদের আটক করেন বাঙ্গরা বাজার থানা পুলিশ।

পূর্ব ধৈইর পূর্ব ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বনজ কুমার শিব জানান, ‘আমার ও শংকরের বাড়ি আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। আমি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। এখন এর বেশি মন্তব্য করতে পারছি না।’

মুরাদনগর উপজেলার বাঙ্গরা বাজার থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, মহানবী সা:-কে নিয়ে করা ব্যঙ্গচিত্রের প্রতি সমর্থন জানিয়ে ফেসবুকে স্ট্যটাস দিয়েছেন এমন অভিযোগে কোরবানপুর গ্রামের একটি বাড়ির ছয়টি ও পাশের বাড়ির একটিসহ সাতটি ঘরে আগুন দেয়া হয়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রেখেছে।

কুমিল্লার পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম জানান, ‘ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যাচ্ছি। বিস্তারিত জেনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’