মুশফিককে কঠিন শর্ত বিসিবির

পাকিস্তান যেতে রাজি না হলে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডের দলে থাকা হচ্ছে না মুশফিকের! বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) এমন শর্ত আরোপ করা হয়েছে দলের সবচেয়ে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানের উপর।

পাকিস্তানে প্রথম দফায় ছিল ৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ, পরের দফায় ছিল একটি টেস্ট ম্যাচ। মুশফিক আগেই না করে দিয়েছিলেন, একবারও যাবেন না পাকিস্তান। দুই দফা সফরের সবকটা ম্যাচেই হারে বাংলাদেশ। মুশফিকের অভাবটা ভালোই টের পেয়েছে টাইগার ক্রিকেট।

তৃতীয় দফায় একটি ওয়ানডে ও একটি টেস্ট ম্যাচ রয়েছে করাচীতে। তার আগে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঘরের মাঠে টাইগাররা খেলছে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ।

একমাত্র টেস্ট ম্যাচে জয়ের পর সিলেটে চলছে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। রোববার জিম্বাবুয়েকে ১৬৯ রানে হারায় বাংলাদেশ। মঙ্গলবার রয়েছে দ্বিতীয় ওয়ানডে।

তার আগে জানা গেল, মুশফিক যদি পাকিস্তান সফরে না যায় তাহলে বাদ দেয়া হবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে।

এ জন্য তাকে বোর্ড থেকে চাপও দেওয়া হয়েছে। টিম ম্যানেজমেন্টের সূত্র নিশ্চিত করেছে বিষয়টি৷

পারিবারিক কারণ ও নিরাপত্তা জনিত কারণ দেখিয়ে মুশফিক নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন পাকিস্তান সফরের দল থেকে। পাকিস্তান সফরের আগে বিসিবি থেকে বলা হয়েছিল, খেলোয়াড়দের ইচ্ছার উপর জোর করবে না বোর্ড।

ক্রিকেট বোর্ডের এই কথা শেষ পর্যন্ত পালটে যায়। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের শেষ দিন বোর্ড প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপনও না যাওয়ার কোনো কারণ দেখছেন না বলে মন্তব্য করেছেন।

ঢাকা টেস্টের পর মুশফিক জানিয়েছিলেন, তিনি তার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেননি। পাকিস্তানে যাবেন না বলেও জানান আবার।

পাকিস্তান সিরিজের আগে বিসিবি থেকে ক্রিকেটারদের সিদ্ধান্ত দেওয়ার স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু বিসিবি এখন হাঁটছে ভিন্ন পথে। পাকিস্তানের বিপক্ষে এপ্রিলের শুরুতে একটি ওয়ানডে ও একটি টেস্ট খেলতে যাবে বাংলাদেশ।