রিয়ালের মাঠে সিটির রোমাঞ্চকর জয়

Real Madrid's Brazilian midfielder Casemiro reacts during the UEFA Champions League round of 16 first-leg football match between Real Madrid CF and Manchester City at the Santiago Bernabeu stadium in Madrid on February 26, 2020. (Photo by OSCAR DEL POZO / AFP)

গোলশূন্য প্রথমার্ধ। বিরতির পর প্রথমে গোল হজম করলেও পথহারা হয়নি ম্যানচেস্টার সিটি। ঘুরে দাঁড়িয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে রিয়াল মাদ্রিদের মাঠ থেকে রোমাঞ্চকর জয় নিয়ে ফিরেছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়নরা।

সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে বুধবার রাতে ইউরোপের ক্লাব ফুটবলের সর্বোচ্চ প্রতিযোগিতার ম্যাচে রিয়ালকে ২-১ গোলে হারায় পেপ গার্দিওলার দল। স্পেনের সবচেয়ে সফল ক্লাবটির বিপক্ষে এটাই সিটির প্রথম জয়। এই জয়ে প্রতিযোগিতাটির কোয়ার্টার-ফাইনালের পথে অনেকটাই এগিয়ে রইল দলটি।

দ্বিতীয়ার্ধে ইস্কোর গোলে প্রথমে এগিয়ে যায় রিয়াল। এরপর গাব্রিয়েল জেসুসের গোলে সমতায় ফেরার পর কেভিন ডে ব্রুইনের পেনাল্টি গোলে জয়ের আনন্দে ভাসে অতিথি দল।

ম্যাচটির শুরুর একাদশে চমক দেখিয়েছেন সিটির কোচ গার্দিওলা। তারকা খেলোয়াড় রাহিম স্টার্লিং, সের্হিও আগুয়েরো, দাভিদ সিলভা ও ফের্নান্দিনোয়োকে বেঞ্চে রেখে একাদশ সাজান স্প্যানিশ এই কোচ। মিডফিল্ড সামলানোর পাশাপাশি আক্রমণের ভূমিকায় দেখা গেছে বের্নাদো সিলভা ও কেভিন ডি ব্রুইনেকে।

শুরু থেকেই সিটি রক্ষণে মনোযোগ দিলেও ২১তম মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার দারুণ সুযোগ পেয়েছিল। কেভিন ডে ব্রুইনের রক্ষণ চেরা পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়েছিলেন জেসুস। ঝাঁপিয়ে পড়ে তা ঠেকিয়ে দেন রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কর্তোয়া। বিরতিতে যাওয়ার ঠিক আগে আরও একটি সুযোগ পেয়েছিল সিটি। এবার প্রতিপক্ষের রক্ষণের বাধার সামনে জেসুসের শটটি জালে জড়ায়নি।

প্রথমার্ধে তেমন নজরকাড়া ছিল না রিয়ালের খেলা। এই সময়ে করিম বেনজেমার হেড ঠেকিয়ে দেন সিটি গোলরক্ষক এদেরসন। গোলশূন্যতায় শেষ হয় প্রথমার্ধ।

ম্যাচের ঘরির কাঁটা ঘণ্টায় গড়াতেই এগিয়ে যায় রিয়াল। ভিনিসিউস জুনিয়রের পাস থেকে বল পান ইস্কো। ডি-বক্সের মাঝামাঝি থেকে ডান পায়ের শটে জালে বল জড়ান স্প্যানিশ এই মিডফিল্ডার।

৭৮তম মিনিটে সমতা ফিরিয়ে বসে সিটি। ডি ব্রুইনের ক্রস থেকে বল পেয়ে খুব কাছ থেকে নেওয়া হেডে জালে বল জড়ান দলটির ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড জেসুস।

পাঁচ মিনিট পর রিয়াল শিবিরে পিনপতন নীরবতা নামিয়ে আনে সিটি। পেনাল্টি থেকে গোল করে ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ করেন দেন অতিথি দলের মিডফিল্ডার ডি ব্রুইনে। রিয়ালের রাইট-ব্যাক সিটির বদলি নামা উইঙ্গার রাহিম স্টার্লিংকে ডি-বক্সে ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। সহজ সুযোগ কাজে লাগাতে ভুল করলেন না ডি ব্রুইনে।

এই ব্যবধান আর ঘুচাতে পারেনি রিয়াল। দলটিকে কোয়ার্টার-ফাইনালে যেতে হলে ফিরতি লেগে সিটির মাঠে ফিরতি লেগে অন্তত দুই গোলের ব্যবধানে জিততে হবে।

শেষ ষোলোর প্রথম লেগের অপর ম্যাচে অলিম্পিক লিওঁর মাঠে অঘটনের শিকার হয়েছে জুভেন্টাস। ১-০ গোলে হেরেছে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোরা।