লিভারের সমস্যায় মৃ’ত্যুর হাত থেকে বাঁচতে আজই এই খাবারগুলো খাওয়া শুরু করুন

লিভারের সমস্যায় মৃ’ত্যুর হাত থেকে বাঁচতে আজই এই খাবারগুলো খাওয়া শুরু করুন – আমারা যত আধুনিক হচ্ছি আমাদের ব্যাস্ততা বাড়ছে। আর ব্যাস্ততার মাঝে বাড়ির খাবার খাওয়ার কথা প্রায় ভুলে যেতেই বসেছে। তার মধ্যে আছে অনভ্যাস।

আর এসবের কারনে আমাদের শরীরে নানা রকম ক্ষতি হচ্ছে। এর জন্য যেমন দায়ী আমাদের অনভ্যাস তার সঙ্গে সমান দায়ী হল পরিবেশ। বর্তমানে দূষন এত বেড়ে গেছে যে তার জন্য আমাদের শরীরে হচ্ছে নানা রকম সমস্যা। পরিবেশের জন্য যেমন শরীরের বাইরের অঙ্গের (ত্বক, চুল) ক্ষতি হচ্ছে, তেমনই শরীরের অভ্যন্তরের ক্ষতিও হচ্ছে সমান ভাবে। সবার আগে শুরু হয় পেটের সমস্যা।

আর পেটের সমস্যা শুরু হয় লিভারের সমস্যা থেকে। আর একবার লিভারের সমস্যা চলে এলে বন্ধ হয়ে যায় অনেক কিছু খাওয়া। তখন অনেক নিয়মের মধ্যে দিয়ে চলতে হয়। যারা দীর্ঘ দিন বাইরের স্পাইসি খাবার খেয়ে অভ্যস্ত তাদেরকে বাকি জীবন বাড়ির হালকা খাবার আর সিদ্ধ খাবার খেয়ে দিন কাটাতে হয়।

কিন্তু এর হাত থেকে মুক্তি পাবার কিছু উপায় আছে। এমন কিছু খাবার আছে যা প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় রাখলে আপনার কখনও লিভারের কোন সমস্যা হবেনা। তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক কি কি সেই খাবার।

১। রসুনঃ লিভার পরিষ্কার রাখার জন্য সবথেকে ভালো একটি খাবার হল রসুন। রসুনে থাকা এনজাইম, যা লিভারে থাকা ক্ষতিকর টক্সিন উপাদানকে পরিষ্কার করে দেয়। এর মধ্যে থাকে আরো দুটি উপাদান যার নাম হল এলিসিন এবং সেলেনিয়াম। এগুলি লিভার পরিষ্কার রাখে আর ক্ষতিকর টক্সিন উপাদান থেকে লিভারকে রক্ষা করে।

রসুন যখন তখন খেলে কোন উপকার পাওয়া যায়না। আপনি প্রতিদিন খালি পেটে ২/৩ টে রসুন খেতে পারেন। আর আপনি যদি চান তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে রসুন দিয়ে তৈরি কোন ভিটামিনও খেতে পারেন।

২। লেবুঃ লেবুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট লিভার পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে। লেবুর জল খাওয়ার কোন নির্দিস্ট সময় নেই। আপনি যখন ইচ্ছা খেতে পারেন। খাওয়ার জন্য সব সময় লেবু জল বানিয়ে রাখতে পারেন। লেবু হজমের শক্তি বৃদ্ধি করে। বেশ কয়েকদিন লেবু জল পান করলে আপনার আর লিভারের সমস্যা থাকবে না।

৩। আপেলঃ কথায় বলে প্রতিদিন একটি করে আপেল খেলে আপনাকে ডাক্তারের কাছে যেতে হবেনা। আপেলে থাকা পেক্টিন ফাইবার দেহের পরিপাক নালী থেকে টক্সিন দূর করে লিভারকে সুস্থ রাখে। যে কোন ধরনের আপেল লিভারের জন্য ভালো। তাহলে আজ থেকেই এই খাবারগুলি আপনার খাদ্য তালিকায় রাখুন আর সুস্থ থাকুন।