শিক্ষিকাকে ধর্ষণচেষ্টা, অফিস সহকারী বরখাস্ত

বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার মানিকদিপা দ্বি-মুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের এক সহকারী শিক্ষিকাকে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনায় একই বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য হারেছ উদ্দিনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সাথে কেন তাকে স্থায়ী ভাবে বরখাস্ত করা হবে না সেই মর্মে শোকজ নোটিশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মানিকদিপা দ্বি-মুখি উচ্চ বিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিভাগের একজন সহকারী শিক্ষিকাকে গত মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারে একা পেয়ে অফিস সহকারী হারেছ উদ্দিন জোর করে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ ঘটনায় পরদিন বুধবার সকালে ওই সহকারী শিক্ষিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন। এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা পান। এরপর বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির বৈঠকে অভিযুক্ত অফিস সহকারীকে সাময়িক বরখাস্ত করে এবং কেন তাকে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে না মর্মে শোকজ নোটিশ করা হয়।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্য সচিব বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল আজিজ জানান, অভিযুক্ত ওই অফিস সহকারীকে সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে এবং কেন তাকে স্থায়ী ভাবে বরখাস্ত করা হবে না মর্মে সাত কার্যদিবসের মধ্যে জবাব চেয়ে শোকজ নোটিশ করা হয়েছে। পাশাপাশি তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার তৌফিক আজিজ জানান, বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি অভিযুক্ত অফিস সহকারীকে সাময়িক বরখাস্ত করেছেন। পাশাপাশি তিন সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন অনুমোদনের জন্য শিক্ষা বোর্ডে পাঠানো হবে। শিক্ষা বোর্ড চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবে।