সাতসকালে ঢাকার মুগদায় ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন এক নারী।

তারিনা বেগম লিপি (৩৮) নামে এই নারী শনিবার ভোর পৌনে ৬টার দিকে মুগদা স্টেডিয়ামের সামনে ছিনতাইকারীর কবলে পড়েন।

পুলিশ জানিয়েছে, প্রাইভেটকারে থাকা ছিনতাইকারী রিকশায় থাকা লিপির ব্যাগ ধরে টান দিলে তিনি সড়কে ছিটকে পড়ে মাথায় আঘাত পান।

লিপিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

লিপি ও তার স্বামী গোলাম কিবরিয়া থাকতেন সিলেটে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি লিপি সপরিবারে দক্ষিণ রাজারবাগ এলাকার এক আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে এসেছিলেন। শনিবার ভোরে সিলেট যাওয়ার জন্য রিকশায় কমলাপুর রেল স্টেশনে যাচ্ছিলেন।

মুগদা থানার ওসি প্রলয় কুমার সাহা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, এক রিকশায় ছিলেন লিপি ও তার বড় ছেলে শাহরিয়ার রিংকি (১৫), অন্য রিকশায় গোলাম কিবরিয়া ও তার মেয়ে তামিসা বিনতে কিবরিয়া (৬)।

“রিকশা মুগদা স্টেডিয়াম এলাকায় পৌঁছালে একটি সাদা রঙের প্রাইভেটকার থেকে ছিনতাইকারী লিপির হাতে থাকা ব্যাগ ধরে টান দেয়। এতে ব্যাগসহ রিকশা থেকে ছিটকে পড়ে মাথা ফেটে যায় লিপির।”

একটু দূরেই পুলিশের টহল গাড়ি ছিল জানিয়ে ওসি বলেন, “সড়ক দুর্ঘটনা ভেবে টহল গাড়িটি দ্রুত ওই নারীর কাছে এসে জানতে পারে এটি ছিনতাইয়ের ঘটনা। তখন লিপিকে প্রথমে মুগদা জেনারেল হাসপাতাল নিয়ে যায়। সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়। জরুরি বিভাগে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।”

ঢাকা মেডিকেল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, মাথায় গুরুতর আঘাতের কারণে লিপির মৃত্যু হয়েছে।

ছিনতাইকারীদের ধরতে অভিযান চলছে বলেন জানান ওসি প্রলয় সাহা।