সামিরাকেই মাফ চাইতে হবে: শাবনূর

সামিরাকেই সরি বলতে হবে, মাফ চাইতে হবে বলে দাবি করেছেন অভিনেত্রী শাবনূর। নব্বইয়ের দশকের তুমুল জনপ্রিয় চলচ্চিত্র অভিনেতা সালমান শাহর স্ত্রী ছিলেন সামিরা। এর আগে তিনি বলেন, কৃতকর্মের জন্য শাবনূরকে সরি বলতে হবে।

সেটি এখন হোক কিংবা পরে– এই জীবনে কিংবা শেষ বিচারের দিনে। জবাবে শাবনূর বলেন, আমি কেন সরি বলতে যাব। আমি কী করেছি যে সামিরা এ ধরনের কথা বলবে! এতটা ঔদ্ধত্যপূর্ণ কথা সামিরা কোনোভাবেই বলতে পারে না।

এ ধরনের কথা বলার জন্য সামিরাকেই সরি বলতে হবে, মাফ চাইতে হবে। সালমান শাহর মৃত্যুর প্রায় দুই দশক পর নতুন করে যেসব কথা উঠছে, তাতে বিরক্তির কথা জানিয়েছেন তার সহশিল্পী শাবনূর। তিনি বলেন, শুনলাম ৫ সেপ্টেম্বর রাতে আমি সালমান শাহকে একাধিকবার ফোন করেছি। আমার ওপর রাগ করে ফোন ভেঙে ফেলেছে।

আমাকে ঝাড়ি মেরেছে। বলেছে– শাবনূর, তুমি আর ফোন দিবা না। আমার উপহার দেয়া ফ্যান ভেঙে ফেলে। এত বছর তদন্তের পর এ ধরনের কথার মানে কী! মঙ্গলবার গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ঢালিউডের এক সময়কার সেরা নায়িকা শাবনূর বলেন, আমি যদি সালমানকে ফোন করে থাকি, নিশ্চয়ই কললিস্ট আছে। কথার রেকর্ডও আছে। তা হলে আমাকে শোনাক। তা হলেই তো সবকিছু পরিষ্কার হয়ে যাবে।

এই চিত্রনায়িকা আরও বলেন, সালমানের মা নীলা আন্টি ও স্ত্রী সামিরা সংবাদ সম্মেলন করে বলুক। তাদের স্বামী-স্ত্রী কী ঝগড়া হচ্ছে, তা তো আমার জানার কথা না। আমার দেখার বিষয়ও না। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে তুঙ্গস্পর্শী জনপ্রিয়তার মধ্যে ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর রাজধানীর ইস্কাটন রোডে নিজের বাসা থেকে সালমান শাহর (চৌধুরী মোহাম্মদ শাহরিয়ার ইমন) লাশ উদ্ধার করা হয়। তখন ঘটনাটিকে আত্মহত্যা ধরে সেই সময় অপমৃত্যু মামলা হয়। তাতে আপত্তি জানায় সালমান শাহর পরিবার।