১০০ ফানুস উড়িয়ে পাহাড়ে জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও একশত ফানুস উড়ানোর মধ্য দিয়ে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাংলাদেশের মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী (মুজিববর্ষ) ও জাতীয় শিশু দিবস-২০২০ উদযাপন করেছে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ।

মঙ্গলাবার (১৭ মার্চ) সকালে শহরের সিও অফিস এলাকায় বঙ্গবন্ধুর মুর‍্যালে পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে উপস্থিত সবাই বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর উপস্থিত সবাই কিছুক্ষণ নীরবতা পালনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফেরাত করেন।

এ সময় রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদ, পরিষদের সদস্য হাজী মুছা মাতব্বর, পরিষদের সদস্য অংসুই প্রু চৌধুরী ও পরিষদের অন্যান্য সদস্য’সহ পরিষদের হস্থান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধুর মুর‍্যালে পুস্পস্তবক অর্পণ শেষে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা তাঁর বক্তব্যের শুরুতেই শ্রদ্ধার সাথে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সকল সদস্য যারা ১৫ই আগস্টে নির্মমভাবে নিহত হয়েছেন এবং মুক্তিযুদ্ধে রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মাধ্যমে যারা এদেশকে স্বাধীন করেছেন তাদের স্বরণ করেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হতো না। আর শেখ হাসিনার জন্ম না হলে এ দেশের উন্নয়ন হতোনা। তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই পার্বত্য চট্টগ্রামের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান হয়েছে এবং শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, যোগাযোগ’সহ সার্বিক উন্নয়ন হচ্ছে। এই উন্নয়নের সুফল এখন সবাই ভোগ করছে। তিনি বলেন, যদি শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী না হতেন তাহলে আমরা এই ডিজিটাল বাংলাদেশ পেতাম না। প্রধানমন্ত্রীর ২০৪১ সালের স্বপ্ন বাস্তবায়নে সকলকে পাশে থাকার আহ্বান জানান চেয়ারম্যান।

এরপর বিকেলে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও পরিষদের সদস্যগন রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ ভবনে বঙ্গবন্ধুর নব নির্মিত ম্যুারালে মাল্যদান শেষে চিংহ্লামং মারী স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ১শত ফানুস উড়ানো হয়।